জেরুজালেমে ইসরায়েলের বিপক্ষে ম্যাচ খেললেই পোড়ানো হবে মেসির জার্সি

নিউজফিডবিডি.কম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: বিশ্বকাপ উপলক্ষে কঠোর অনুশীলন করছে অংশগ্রহণকারী দলগুলো। প্রস্তুতির অংশ হিসেবেই ৯ জুন ইসরায়েলের বিপক্ষে প্রীতি-ম্যাচ খেলার কথা রয়েছে আর্জেন্টিনার। জেরুজালেমে অনুষ্ঠিতব্য এই ম্যাচ নিয়ে এরই মধ্যে শুরু হয়েছে বিতর্ক। আর্জেন্টাইন সুপার স্টার লিওনেল মেসিকে এই ম্যাচ না খেলার আহ্বান জানিয়েছেন ফিলিস্তিন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি জিব্রিল রজৌউব।

জিব্রিলের অভিযোগ, বিরোধপূর্ণ জেরুজালেমে এই ম্যাচটিকে রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করবে ইসরায়েল। মেসি যদি এই ম্যাচ খেলেন তাহলে প্রতিবাদ হিসেবে তার ছবি ও জার্সি পোড়ানোরও আহ্বান জানান জিব্রিল।

সংবাদ সম্মেলন করে জিব্রিল বলেছেন, মেসি শান্তি ও ভালোবাসার প্রতীক। আরব ও মুসলিম রাষ্ট্রে তার ১০ মিলিয়ন ভক্ত আছে। তাকে ইসরায়েলের রাজনৈতিক ফায়দার অংশ না হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

জিব্রিল রাজুব হুমকি দিয়েই বললেন তাহলে মেসির জার্সি ও ছবি পোড়ানো হবে, ‘মেসি আমাদের অনুরোধ না রাখলে মুসলিম বিশ্বের সব তরুণকে বলব, তাঁর ছবি ও জার্সি পুড়িয়ে ফেলতে। সবাই যেন বর্জন করে মেসিকে।’ মেসি ৯ জুন ইসরায়েলে খেলতে আসেন কি না সেটাই দেখার এখন।

বিশ্বের তিনটি প্রধান ধর্মের মানুষদের কাছে পবিত্র ভূমি হিসেবে স্বীকৃত জেরুজালেম। কিন্তু এটি এককভাবে অধিকার করে রেখেছে ইসরায়েল। ফিলিস্তিনদের ওপর ধারাবাহিক গণহত্যা চালিয়ে আসছে তারা। জেরুজালেমের যে স্টেডিয়ামে প্রীতি ম্যাচটি হওয়ার কথা রয়েছে সেখানে এক সময় ফিলিস্তিনের একটি গ্রাম ছিল।

১৯৪৮ সালে স্টেডিয়ামটি তৈরির সময় ফিলিস্তিনের গ্রামটি ধ্বংস করে দিয়ে বসতি নির্মাণ করে ইসরায়েল। সেই থেকে দমন নিপিড়নে ফিলিস্তিনিদের অধিকার হরন করছে ইহুদিবাদি ইসরাইল।

এন.এফ.বি/ এন.এম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here