সমুদ্র পথ বন্ধ করা নিয়ে ইরানকে ইসরায়েলের হুঁশিয়ারি

নিউজফিড,ডেস্ক :

ইরান লোহিত সাগর ও এডেন উপসাগরের সংযোগকারী বাব আল মানদেব প্রণালী বন্ধ করে দেওয়ার চেষ্টা করলে সেখানে সামরিক বাহিনী মোতায়েন করা হবে বলে সতর্ক করেছে ইসরায়েল। বুধবার ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু এ কথা বলেছেন বলে জানায় বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

ইসরায়েলের হাইফায় নৌবাহিনীর নতুন কর্মকর্তাদের পাসিং আউট প্যারেডের বক্তৃতায় নেতানিয়াহু বলেছেন, যদি ইরান বাব আল মানদেব প্রণালী বন্ধ করার চেষ্টা করে, আমি নিশ্চিত তাহলে সে নিজেকে তার প্রচেষ্টা প্রতিরোধ করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ একটি আন্তর্জাতিক জোট বাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধরত অবস্থায় দেখতে পাবে। আর এই জোটে ইসরায়েলের সামরিক বাহিনীর সবগুলো শাখা অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

ওই অনুষ্ঠানে পৃথক এক বক্তৃতায় ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী আভিডোর লিবেরমান বলেছেন, সমপ্রতি লোহিত সাগরে ইসরায়েলি জাহাজের ক্ষতি করার হুমকি বিষয়টি জানা গেছে। এটুকু বললেও কথিত বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত আর কিছু জানাননি তিনি।

গত সপ্তাহে সৌদি আরব জানিয়েছিল, এই প্রণালী দিয়ে তেল রপ্তানি স্থগিত করছে তারা। ইরান সমর্থিত ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা বাব আল মানদেব প্রণালীতে দুটি জাহাজে হামলা চালানোর পর ওই ঘোষণা দেয় সৌদি আরব।

ইয়েমেনে গত তিন বছর ধরে সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে ছায়াযুদ্ধ চলছে। বাব আল মানদেবের প্রণালীটির অবস্থান ইয়েমেনের দক্ষিণ–পশ্চিম উপকূলে। সমুদ্র পথে মধ্যপ্রাচ্য থেকে ইউরোপে তেল সরবরাহের প্রধান রুট এটি।

গত সপ্তাহে হুতিরা দাবি করেছে, সৌদি সমুদ্র বন্দর ও লোহিত সাগরের অন্যান্য লক্ষ্যে আঘাত হানার মতো নৌশক্তি আছে তাদের। এর আগেও প্রণালীটি বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিল তারা। ইরান কখনো বাব আল মানদেব প্রণালী বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দেয়নি। ইরানের তেল রপ্তানি রুদ্ধ করা হলে তাদের ভূখণ্ড সংলগ্ন পারস্য উপসাগরের প্রবেশ পথ হরমুজ প্রণালী বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে দেশটি।

প্রধানত এশিয়া থেকে ইসরায়েলগামী জাহাজগুলো বাব আল মানদেবে প্রণালী অতিক্রম করে ইসরায়েলের লোহিত সাগরীয় বন্দর এইলাত বা সুয়েজ খাল পার হয়ে ভূমধ্যসাগরীয় বন্দরগুলোতে যায়। জর্দানের আকাবা বন্দর ও সৌদি আরবের জেদ্দা বন্দরসহ কয়েকটি গন্তব্যে যেতেও জাহাজগুলো প্রণালীটি ব্যবহার করে।

২০১৬ সালে এই প্রণালী দিয়ে প্রতিদিন ৪৮ লাখ ব্যারেল অপরিশোধিত তেল ও অন্যান্য পণ্য সরবরাহ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের এনার্জি ইনফরমেশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন। প্রণালীটি মাত্র ২৯ কিলোমিটার প্রশস্ত। সংকীর্ণ এই প্রণালী দিয়ে গমনরত জাহাজগুলো হামলার সহজ লক্ষ্য।

সিরিয়ায় ইরানি বাহিনীর অবস্থান নিয়েও শঙ্কিত হয়ে পড়েছে ইসরায়েল। দেশটি সিরিয়ায় অবস্থানরত ইরানি বাহিনীগুলোর ওপর হামলা চালিয়েছে এবং সিরিয়া থেকে ইরানি বাহিনীর সম্পূর্ণ প্রত্যাহারের জন্য চাপ সৃষ্টি করে চলেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here