রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন দ্রুত করতে বাংলাদেশের পাশে থাকবে মালয়েশিয়া

নিউজফিড,ঢাকা:
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন দ্রুত করতে মিয়ানমারকে বোঝাবে মালয়েশিয়া। সমস্যা সমাধান ঢাকাকে দেবে সর্বোচ্চ সহযোগিতা। রোববার সন্ধ্যায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় একথা জানিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইফুদ্দিন বিন আবদুল্লাহ। তার সঙ্গে বৈঠক শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন জানান, আগস্ট থেকেই খুলতে পারে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার।

ঢাকা সফরে রয়েছেন মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইফুদ্দিন বিন আবদুল্লাহ। কক্সবাজার রোহিঙ্গা আশ্রয় শিবির ঘুরে এসে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বসেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে। এতে রোহিঙ্গা ইস্যুর পাশাপাশি গুরুত্ব পায় মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রপ্তানি ও মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির বিষয়টি।

পরে সাইফুদ্দিন বিন আবদুল্লাহ জানান, আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা আসিয়ান ও মালয়েশিয়া বিশ্বাস করে, রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরে যাওয়াই এ সংকটের একমাত্র সমাধান। প্রত্যাবাসন দ্রুত করতে আসিয়ানের কমিটি কাজ করছে উল্লেখ করে তিনি জানান, এ বছরের শেষ-নাগাদ ফলপ্রসূ অগ্রগতির আশা করা যাচ্ছে।

মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইফুদ্দিন বিন আবদুল্লাহ বলেন, মালয়েশিয়া রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে যতটুকু সম্ভব সহযোগিতা করবে। তাছাড়া মালয়েশিয়া চায়, যত দ্রুত সম্ভব রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন শুরু হোক। মালয়েশিয়া আসিয়ানে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বাংলাদেশের পক্ষে কাজ করবে।

মালয়েশিয়ার উন্নয়নে বাংলাদেশি শ্রমিকের অবদানের কথা সামনে এনে মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কর্মী নেয়ার বিষয়ে নতুন সরকার কাজ করছে। আর বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, বেতন নির্ধারণসহ শ্রমিকের সামাজিক নিরাপত্তার নিয়ে নীতিমালা তৈরি হচ্ছে। আগস্টে খুলবে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, নতুন সরকার নতুনভাবে কাজ করছে। তারা শ্রম বাজারের জন্যও নীতিমালা তৈরি করছে। আশা করছি আগষ্ট থেকেই আমরা সেখানে শ্রমিক পাঠাতে পারবো।

এছাড়া আগামী বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির বিন মোহাম্মদকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here