নাইজেরিয়ায় সাপ আর বানর চুরি করছে লাখ লাখ ডলার!

যদি প্রাণী চুরি করে তো তারা ধনী হবে তাই ব্যঙ্গাত্মক এই টুইট

নিউজফিডবিডি.কম


আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: পৃথিবীর ইতিহাসে নাইজেরিয়ায় যা ঘটছে তা আর কোথাও কখনো ঘটেছে কিনা তা কারো জানা নেই। টাকা-পয়সা চুরির ঘটনা নতুন নয়। কিন্তু সেখানে লাখ লাখ ডলারের সমমূল্যের অর্থ চুরি করছে সাপ আর বানর! যাদের চুরি যাচ্ছে তারাই এ অভিযোগ করছেন। কাজেই অভিযোগ উত্থাপনকারীর কথা তো আর ফেলে দেওয়া যায় না।

ব্যাপকহারে দুর্নীতিতে বিপর্যস্ত নাইজেরিয়া। আর সেই দুর্নীতি ঢাকতে দুর্নীতিবাজরা এখন বন্য প্রাণীদের দোষি সাব্যস্ত করতে ব্যস্ত। অনেকটা উধোর পিন্ডি বুধোর ঘাড়ে চাপানোর বিষয়, যেখানে দুর্নীতিবাজরা নিজেরাই প্রথমপক্ষ, আর সাপ-বানরদের ঘাড়ে দোষ চাপানোর মতো ছেলেমানুষি পন্থা বেছে নিয়েছেন তারা।

দুর্নীতির মাধ্যমে সেখানে অনেকেই প্রচুর অর্থের মালিক হয়েছেন। সেগুলোর হিসেব তো দিতে হয়। হিসেবের বৈধ কাগজপত্র তো আর নেই। কাজেই তা সরকারকে ফেরত দিতে হবে। তাই এসব অর্থ চুরি হয়ে গেছে বলে দায় চাপানো হচ্ছে প্রাণীদের ওপর। এ নিয়ে ব্যাপক মজা চলছে সোশাল মিডিয়ায়। কিছু দিন আগে দোকান থেকে এক সেলস ক্লার্ককে ছাঁটাই করেন মালিক। ওই ক্লার্ক দাবি করে, একটি সাপ নাকি দোকানের ৩৬ মিলিয়ন নাইরা (নাইজেরিয়ান মুদ্রা) গিলে ফেলেছে, যা প্রায় ১ লাখ ডলারের সমান। এক কয়েক সপ্তাহ বাদেই এ ধরনের অভিযোগ আনলেন খোদ সিনেটর। তিনি বললেন, তার একটি ফার্ম হাউজ থেকে ৭০ মিলিয়ন নাইরা বা ১ লাখ ৯৪ হাজার ডলার চুরি হয়ে গেছে।

প্রথম ঘটনার ক্ষেত্রে নাইজেরিয়ান এক্সামিনেশন বোর্ড দোকানের নারী কর্মীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এর পর তার সাপের পয়সা খেয়ে ফেলার দাবি গ্রহণ করেনি। জয়েন্ট অ্যাডমিশন্স অ্যান্ড ম্যাট্রিকুলেশন্স বোর্ড তার বক্তব্য আরো স্পষ্ট জানার জন্য শুনানীর দিন ধার্য করেছে।

দ্বিতীয় ঘটনায় সিনেটর তার সহকর্মীর দুর্নীতির অর্থ বাঁচাতে তা বানরের দল নিয়ে গেছে বলে যুক্তি উপস্থাপন করেছেন। যদিও তিনি বলতে পারেননি কোন বানরগুলোর এই অপকর্মে জড়িত।

এসব ঘটনার পরই সাপ আর বানরদের নিয়ে ব্যাঙ্গাত্মক টুইটে ভরে গেছে টুইটার।

এন.এফ.বি/ এন.এম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here